ছৈয়দুল হক উচ্চ বিদ্যালয়ে ঈদ পূনর্মিলনী  করেরহাট আ.লীগে কামরুলের নেতৃত্ব চায় তৃনমূল নেতা-কর্মীরা  মিরসরাই আওয়ামীলীগের কাউন্সিল : সম্ভাব্য প্রার্থীদের দৌড়ঝাপ  মিরসরাইয়ে মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তির হামলায় বৃদ্ধা নিহত  ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে মিরসরাইয়ের তামান্না  মিরসরাইয়ে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ড্রেন দখল চেষ্টার অভিযোগ  নামী দামি ব্রান্ডের ৫২ পণ্য বিক্রি বন্ধে আদালতের নির্দেশ  সমুদ্রের ৩৮ কি.মি গভীরে জিপির নেটওয়ার্ক মিললেও মেলে না ঘরে ভেতর  তিউনিসিয়ায় নৌকা ডুবে মৃত ৬০ জনের অধিকাংশ বাংলাদেশি  মিরসরাই আ’লীগের কাউন্সিল : আলোচনায় অর্ধ ডজন সম্ভাব্য প্রার্থী


লিডনিউজ | logo

১১ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২৫শে জুন, ২০১৯ ইং

ভ্রমণকথা : আদুরে প্রকৃতির টাঙ্গুয়ার হাওর

ভ্রমণকথা : আদুরে প্রকৃতির টাঙ্গুয়ার হাওর

ফজলুল জিহান: রাতে ট্রেনে সিলেটের উদ্দেশ্য যাত্রা শুরু করি। ১৩ তারিখ সকাল ৬ টায় পৌছাঁই সিলেট। ৭:৩০ এর মধ্যে খাওয়া-দাওয়া শেষ করে সিএনজি তে করে পৌছাঁই কুমারগাও বাস স্ট্যান্ড, যেখান থেকে সুনামগন্জের বাস ছেড়ে যায়। ১০:৩০ এ পৌঁছে যাই সুনামগন্জ সদরে।

সেখান থেকে লেগুনা তে করে যাই তাহিরপুরে(১:৩০ ঘন্টা)। থানায় এন্ট্রি করে, দুই দিনের জন্য বাজার-সদাই করে দুপুরের খাবার খেয়ে উঠে পড়ি নৌকায় (আগে থেকে ঠিক করা ছিলো)।

এক ঘন্টা পর পৌঁছে যাই ওয়াচ টাওয়ারে। পাশেই সোয়াম্প ফরেস্ট। ঘন্টাখানেক গোসল করে রওনা দিই টেকেরঘাটের উদ্দেশ্য। ৫ টায় পৌঁছে যাই টেকেরঘাট। পাশেই নীলাদ্রি লেক, এবং অল্প একটু দূরে হাঁটা দুরত্বেই লাকমাছড়া। অন্ধকার হওয়ার আগেই এ দুটি জায়গায় ঘুরে চলে যাই টেকেরঘাট বাজারে। হালকা নাস্তা করে নৌকায় ফিরে রাতের খাবারের আয়োজন করি নিজেরাই। পরদিন বাজারে সকালের নাস্তা করে ৭ টায় বাইকে করে যাত্রা শুরু করি বারেক্কা টিলা,যাদুকাটা নদী এবং লাকমাছড়ার উদ্দেশ্য ( আগের দিন ভালো করে দেখতে পারি নাই)। শিমুলবাগান যাওয়া হয় নাই পানি বেড়ে যাওয়াতে, যাত্রাপথে নদী পার হতে হতো। আগের রাতে বজ্রসহ বৃষ্টি পানিই শুধু বাড়িয়ে দেয় নি, স্বচ্ছতাকে ঢেকে দিয়েছিলো ঘোলা আবরণ দিয়ে। ঘন্টা তিনেকের মধ্যে ঘোরাঘুরি শেষ করে আরেকবার নীলাদ্রি লেকের মোহনীয়তা দেখতে যাই।
এগারটা ৩০ মিনিট এ ফিরতি যাত্রা শুরু করি তাহিরপুরের পথে। যাত্রাপথেই দুপুরের খাবার খেয়ে নিই। ২ টার দিকে রওনা দিই লেগুনা তে করে সুনামগন্জ সদরের উদ্দেশ্য। সদর থেকে লেগুনা তে করেই হাসন রাজার মিউজিয়ামও দেখে আসি। ৪:৩০ এ সুনামগন্জ থেকে সিলেটগামী বাসে উঠে ৬:৩০ এ সিলেট চলে আসি। ৯ টা পর্যন্ত সিলেটে ঘোরাঘুরি,খাওয়া-দাওয়া শেষ করে ৯:২০ এর ট্রেনে চট্টগ্রামে ফিরে আসি।

খরচ: চট্টগ্রাম টু সিলেট ট্রেন ৩৭৫, স্টেশন-কুমারগাও ৩০, কুমারগাও বাস স্ট্যান্ড টু সুনামগন্জ ১০০(জনপ্রতি), নাস্তা ৪০, সুনামগন্জ টু তাহিরপুর লেগুনাতে ৭০০ (মোট), তাহিরপুরে ভাত ৮০, বাজার-সদাই ২০০০ ( ১৪ জন), গ্যাস-হাড়ি-পাতিল ১৫০০,নৌকা ৯০০০ (মোট), লাইফ জ্যাকেট ১০০ (জনপ্রতি), টেকেরঘাটে নাস্তা ৩০, পরের দিন সকালের নাস্তা ৪০, বাইকে ২০০ ( প্রতি বাইক),তাহিরপুর টু সুনামগন্জ ৭৫০ (লেগুনা), সদর টু হাসন রাজার মিউজিয়াম ৪০০( ২০০ টাকা টিকেট,১০ জনের),সুনামগন্জ টু সিলেট ১০০, বাস স্ট্যান্ড টু রেল স্টেশন ৩০০, ট্রেনে ৩৭৫+ ১৩০।


লিডনিউজ | logo

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    

সম্পাদক ও প্রকাশক:
ঠিকানা:
মুঠোফোন: ,ইমেইল:

© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত

ঢাকা অফিস: ১৯২ ফকিরাপুল, (৩য় তলা),
মতিঝিল, ঢাকা-১০০০।

rss goolge-plus twitter facebook
DEVELOPMENT: