পেশায় ভিক্ষুক, থাকেন ৮০ লাখ টাকার ফ্ল্যাটে আয় মন্ত্রীর চেয়ে বেশি

লিডনিউজটুয়েন্টিফোর.কম,

অনলাইন ডেক্স : তাকে সমাজের কোন শ্রেণির অন্তর্ভুক্ত করবেন আপনি? উচ্চবিত্তই নিশ্চয়ই। চমকটা হলো, যার কথা বলা হচ্ছে পেশায় তিনি ডাক্তারও নন, ব্যবসায়ি বা চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেটও নন। স্রেফ একজন পথের ভিখারি! আয় মন্ত্রীর চেয়েও বেশি। যিনি মাসে ৭৫ হাজার টাকা রোজগার করেন এবং যার ফ্ল্যাটের দাম ৮০ লক্ষ টাকা,

ভারতের বাণিজ্যিক রাজধানী মুম্বাইয়ের ভরত জৈন এমনই একজন সম্পদশালী ভিক্ষুক যিনি দুই ছেলে, বাবা আর ভাইকে নিয়ে মুম্বাইয়ের যে ফ্ল্যাটটিতে থাকেন, তার দাম ৮০ লাখ ভারতীয় রুপি। রোজ ছত্রপতি শিবাজি টার্মিনাস বা আযাদ ময়দানে ৮-১০ ঘণ্টা ভিক্ষা করে আয় করেন আড়াই হাজার রুপির মতো।

সে হিসেবে মাস শেষে তার আয় দাঁড়ায়, যে কোনো রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর বেতনের চেয়েও বেশি, ৭৫ হাজার রুপি। এখানেই শেষ নয়। তার একটি দোকানঘরও রয়েছে। যা থেকে মাসে ভাড়া বাবদ আসে দশ হাজার রুপি করে।

ভরতের দুই ছেলের বড়টি দ্বাদশ শ্রেণিতে আর ছোটটি দশম শ্রেণিতে পড়ছে। সারা ভারত খুঁজে ভরতের মতো ধনী ভিক্ষুক আর না মেলায়, বলা হচ্ছে ভরতই ভারতের সবচেয়ে ধনী ভিক্ষুক।

এ তালিকায় আরো আছেন সারভাতিয়া দেবী। পাটনায় আলিশান ফ্ল্যাটে থাকেন। মেয়েকে ভাল জায়গায় বিয়ে দিয়েছেন। বছরে ৩৬ হাজার রুপি ইন্স্যুরেন্স প্রিমিয়াম দেন। আর ভিক্ষাটা করেন ট্রেনে চেপে। তার মতে, এর মজাই আলাদা। বিনা টিকিটে দেশের যেকোনো জায়গায় চলে যেতে পারেন। সারভাতিয়াকে বলা হচ্ছে ভারতের সবচেয়ে বিখ্যাত নারী ভিক্ষুক।

সম্প্রতি এক জরিপে উঠে এসেছে ভারতে ভিক্ষাবৃত্তি আর ভিক্ষুকদের এসব চমকপ্রদ তথ্য।

ভিডিও ⏯

You May Also Like